Home / প্রতিবেদন / All About Android (অ্যান্ড্রয়েড রিভিউ) !!!

All About Android (অ্যান্ড্রয়েড রিভিউ) !!!

স্মার্টফোন বাজারে দিন দিন অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইস এর সংখ্যা বেড়েই চলেছে। কিছুদিন পর পর এ আসছে নতুন নতুন সব অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইস। আর এইসব ডিভাইস এ থাকছে নতুন নতুন সব  ফিচার। প্রতিদিন  অ্যান্ড্রয়েড পরিবার এ যোগ হচ্ছে নতুন মুখ। যারা নতুন ইউজার তাদের মনে জেগে উঠে নানা প্রশ্ন। আর এরকম কিছু প্রশ্নের উত্তর নিয়েই আমাদের আজকের পোস্ট…

 

১) অ্যান্ড্রয়েড কি ?

geekyandIknowit

– অ্যান্ড্রয়েড হল লিনাক্স এর উপর ভিত্তি করে তৈরি করা একটি অপারেটিং সিস্টেম। সাধারনত টাচস্ক্রীন ফোন এবং ট্যাবলেট পিসি এর জন্য অ্যান্ড্রয়েড ডেভেলপ করা হয়েছে। সিম্বিয়ান এবং উইন্ডোজ মোবাইল অপারেটিং সিস্টেম এর সাথে প্রতিযোগিতার জন্য ২০০৩ সালে  Andy Rubin, Rich Miner, Nick Sears এবং Chris White অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেম ডেভেলপ করার চেষ্টা চালান।

growth-chart

পরবর্তীতে ২০০৫ সালে গুগল এই অপারেটিং সিস্টেম টি কিনে নেয়। গুগল কিনে নেয়ার পর ও Rubin,  Miner এবং Chris White গুগল এর সাথে থেকে যান এবং অ্যান্ড্রয়েড কে ডেভেলপ করার চেষ্টা চালিয়ে যান। মে ২০১৩ পর্যন্ত সারা বিশ্বে প্রায় ৯০০ মিলিওন অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইস বিক্রি হয়েছে।

২) অ্যান্ড্রয়েড এর ভার্সনঃ 

অ্যান্ড্রয়েড এর ভার্সন গুলো দেখে নিন এক নজরে…

Android-Versions

 

Cupcake:

  • Android 1.5

Donut:

  • Android 1.6

Eclair:

  • Android 2.0, also 2.0.1
  • Android 2.1
  • Android 2.1-update1

Froyo:

  • Android 2.2, also 2.2.x updates

Gingerbread:

  • Android 2.3, also 2.3.x updates

Honeycomb:

  • Android 3.0, also 3.0.x updates
  • Android 3.1
  • Android 3.2

Ice Cream Sandwich:

  • Android 4.0

Jelly Bean:

  • Android 4.1
  • Android 4.2

৩) অ্যান্ড্রয়েড এর সুবিধাঃ

* মাল্টি টাস্কিং – যেমন আপনি গান শোনার সময় ও ফেসবুক ব্রাউজিং বা গেম খেলতে পারবেন।

* ইমেইল, ফেসবুক এবং টুইটার সহ যে কোন নোটিফিকেশন।

* নিজের মত করে ফোনে কে কাস্টমাইজ করার সুযোগ।

* রুট করার সুবিধা।

* কাস্টম রম ইন্সটল করার সুযোগ।

* লক্ষ লক্ষ অ্যাপ পাবেন প্লে স্টোর এ।

*হাজার হাজার  থিম, ওয়ালপেপার, লাইভ ওয়ালপেপার

৪) রুট কি ?

0311E856-EAB9-4446-B3D8-5E893A31A485

– সাধারন অর্থে রুট বলতে আমরা বুঝি গাছের মাটির নিচের অংশ বা মূল। কিন্তু না বন্ধুরা অ্যান্ড্রয়েড রুট বলতে এমন কিছুই বুঝায় না। অ্যান্ড্রয়েড রুট হচ্ছে এমন একটি প্রক্রিয়া যার মাধ্যমে আপনি আপনার ফোনের এডমিন হওয়ার সুযোগ পাবেন। এতদিন আপনার ফোনের কন্ট্রোল ছিল গুগল এর কাছে। রুট করার মাধ্যমে আপনি হয়ে যাবেন আপনার ফোনের কন্ট্রোলার। রুট করার মাধ্যমে আপনি আপনার ফোনে কাস্টম রম, কাস্টম কার্নেল, কাস্টম রিকভারি ইন্সটল করতে পারবেন।

৫) কাস্টম রম কি ?

8c2afa0845654a9d47abfc11ade469c7

কাস্টম রম হল অ্যান্ড্রয়েড বেজড কিছু কাস্টমাইজড অপারেটিং সিস্টেম। যেমন Samsung এর মূল ইউজার ইন্টারফেস হল  এবং  HTC এর ইউজার ইন্টারফেস হল । ঠিক তেমনি এই সব ইউজার ইন্টারফেস কে আরও কাস্টমাইজ করে এবং নানা রকম সুযোগ সুবিধা যোগ করে তৈরি করা হয় বিভিন্ন কাস্টম রম। যেমন Cyanogenmod, AoKp এর কাস্টম রম। আপনার ফোন অফিসিয়াল অ্যান্ড্রয়েড আপডেট না পেলেও রুট করে কাস্টম রম ইন্সটল করার মাধ্যমে আপনি আপডেটেড অ্যান্ড্রয়েড এর মজা নিতে পারবেন।

৬) রুট করার পর আপনি কি অফিসিয়াল আপডেট পাবেন ?

– এর উত্তর দুইটি। প্রথম উত্তর না কারণ রুট করার পর আপনি আপনার ডিভাইস এ কোন প্রকার OTA (ওভার দা এয়ার) আপডেট পাবেন না। দ্বিতীয় উত্তর হল হ্যাঁ। কারণ OTA আপডেট না পেলেও আপনি ম্যানুয়ালি আপনার ডিভাইস এ রিলিজ পাওয়া অফিসিয়াল আপডেট ইন্সটল করতে পারবেন।

৭) রুট করার সুবিধা গুলো কি ?

– এই প্রশ্নের উত্তর র দিলাম না। কারণ রুট এর সুবিধা অসুবিধা নিয়ে আগের একটি পোস্ট রয়েছে । আগের পোস্ট টির লিংক দিয়ে দিলাম

অ্যান্ডড্রয়েড রুটঃ সুবিধা এবং অসুবিধা

৮) রুট না করে কি কাস্টম রম ইন্সটল করা যাবে?

– না। রুট না করলে আপনি আপনার ডিভাইস এ কাস্টম রম ইন্সটল করতে পারবেন না। কাস্টম রম ইন্সটল করার জন্য কাস্টম রিকভারির প্রয়োজন হয়। র রিকভারি ইন্সটল করার জন্য রুট করা আবশ্যক।

৯) কাস্টম রিকভারি কি?

clockworkmod

– কাস্টম রিকভারি হচ্ছে এমন একটি সিস্টেম জা আপনাকে আপনার ফোনের ব্যাক আপ রাখতে সাহায্য করবে। শুধু তাই নয় কাস্টম রম এবং বিভিন্ন কাস্টম মোডিফিকেশন ইন্সটল করতে আপনাকে সাহায্য করবে। রুট করে কাস্টম রিকভারি ইন্সটল করার পর ফোন রি-স্টার্ট করে আপনি রিকভারি মোড এ যেতে পারবেন।

১০) রম ফ্ল্যাশ করা মানে কি বুঝায় ?

– রম বা কাস্টম রম ফ্ল্যাশ করা মানে রিকভারি মোডের সাহায্যে আপনি আপনার ফোনে নতুন কাস্টম রম ইন্সটল করা বুঝায়।

১১) বুট লোডার কি ?

android_unlocked_sf

– বুট লোডার হচ্ছে এক ধরনের কোড বা কমান্ড যা যে কোন অপারেটিং সিস্টেম কে চালু হতে সাহায্য করে। সব অ্যান্ড্রয়েড ফোনে বুট লোডার দেয়া থাকে যা ফোনের অপারেটিং সিস্টেম কে নরমালি বুট হতে নির্দেশনা দেয়। আমরা সবাই জানি অ্যান্ড্রয়েড একটি ওপেন সোর্স অপারেটিং সিস্টেম। যে কেউ এই সিস্টেম কে ডেভেলপ করতে পারে। তাই বিভিন্ন স্মার্টফোন কোম্পানি তাদের স্মার্টফোন গুলোর জন্য নিজস্ব বুট লোডার তৈরি করে। আপনি যাতে আপনার স্মার্টফোনের অপারেটিং সিস্টেম টাকে নষ্ট না করে ফেলেন সে জন্য কোম্পানি গুলো বুট লোডার লক করে দেয় ।

১২) বুট লোডার আনলক না করে কি কাস্টম রম ইন্সটল করা যায় ?

– না। বুট লোডার আনলক না করে কাস্টম রম ইন্সটল করা যাবে না। কাস্টম রম ইন্সটল করার জন্য বুট লোডার আনলক করা জরুরি।

১৩) স্মার্টফোন কি ব্রিক হয়? কিভাবে ব্রিক হয় ?

– হ্যাঁ, স্মার্টফোন ব্রিক হয়। আপনার ফোন টি ব্রিক হতে পারে যদি  ফোন রুট বা রম ইন্সটল করার সময় রুট বা ইন্সটল প্রসেস কোন কারনে বাধা পায়। এছাড়া ভুল কাস্টম কার্নেল ইন্সটল করলেও আপনার ফোন টি ব্রিক হতে পারে।

 

Mobile Update

About Rayhan

আপনার মূল্যবান কমেন্ট করুন :)