Home / প্রতিবেদন / ২০১৩ বেস্ট স্মার্টফোন রিভিউ !!!!

২০১৩ বেস্ট স্মার্টফোন রিভিউ !!!!

যারা নতুন অ্যান্ড্রয়েড কিনার কথা ভাবছেন তারা ভুগছেন নানা দ্বিধায়। ২০১৩ সালে অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন বাজারে এসেছে HTC One, Galaxy S4, Xperia Z এর মত বেশ কিছু নামি দামী অ্যানড্রয়েড ফোন। গত এপ্রিল মাসেই বাজারে আসে HTC One এবং Samsung Galaxy S4 যা এখন পর্যন্ত স্মার্ট ফোন বাজারে বড় দুটি নাম। HTC One এবং Samsung Galaxy S4  বাজারে আসার পর পর্যায়ক্রমে HTC One X , HTC One X+ এবং Samsung Galaxy S3 এর জায়গা দখল করে নেয়। বর্তমান অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন বাজারের শীর্ষে রয়েছে HTC One, Galaxy S4 এবং  Xperia Z। চলুন দেখে আসি ২০১৩ সালের বেস্ট অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন গুলো কি কি…

Google Nexus 4

Nexus 4 হল গুগল এর নেক্সাস ব্র্যান্ড এর চতুর্থ স্মার্টফোন।  Nexus 4  বর্তমানে স্মার্টফোন বাজারে থাকা গুগল এর একমাত্র নেক্সাস স্মার্টফোন।Nexus 4 এ রয়েছে  ১.৫ গিগাহার্জ Snapdragon S4 Pro প্রসেসর, ২জিবি র‍্যাম, ৮ জিবি অথবা ১৬ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ,১.৩ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা এবং ৮ মেগাপিক্সেল ব্যাক ক্যামেরা। যদিও আর কিছুদিনের মধ্যেই বাজারে চলে আসবে Nexus 5, তবুও এখন পর্যন্ত Nexus 4 অনেক জনপ্রিয় একটি স্মার্টফোন। বর্তমান বাজারে থাকা বিভিন্ন ১০৮০পি কোয়ালিটির ডিসপ্লে এবং  নেক্সট জেনারেশন কোয়াড কোর সমৃদ্ধ স্মার্টফোন এর তুলনায় Nexus 4 এ রয়েছে ৭২০ পি কোয়ালিটির ডিসপ্লে এবং কোয়াড কোর প্রসেসর যা আপনাকে যথেষ্ট ভাল পারফর্মেন্স দিবে। আর সবচাইতে ভাল ব্যাপার হল সকল Nexus 4 ইউজার অ্যান্ড্রয়েড এর লেটেস্ট আপডেট টি আর কেউ পাক না পাক আপনি পেয়ে যাবেন সবার আগে।  চলুন এক নজরে দেখে আসি  Nexus 4 এর কিছু ভাল এবং খারাপ দিক…

Smartphone review

Nexus 4 এর ভাল দিকঃ

১) উন্নত বিল্ড কোয়ালিটি

২) অ্যান্ড্রয়েড 4.2 বিল্ট ইন

৩)  কোয়াড কোর প্রসেসর

৪) অন্যান্য অ্যানড্রয়েড স্মার্টফোন এর তুলনায় কম দাম।

৫) ওয়ারলেস চার্জার সাপোর্ট

Nexus 4 এর খারাপ দিকঃ

১) LTE সুবিধা নাই

২) ব্যাক সাইড এর গ্লাস কভারিং সহজে ভেঙ্গে যায়

৩) ব্যাটারি রিপ্লেস করা যায় না

৪) এক্সটারনাল এস ডি কার্ড স্লট নেই

৫) ব্যাটারি ব্যাকআপ  কম

 

Sony Xperia Z

২০১৩ সালের ফেব্রুয়ারী তে বাজারে আসে সনির ফ্লাগশিপ Xperia Z। বাজারে আসার পর এর আকর্ষণীয় ডিজাইন সারা বিশ্ব জুড়ে সবার নজর কেড়েছে। সনির এই ফ্লাগশিপ এ রয়েছে ৫.০ ইঞ্চি ১০৮০ পি HD স্ক্রীন আর সাথে ব্রাভিয়া ইঞ্জিন তো থাকছেই, আরও আছে কোয়াড কোর ১.৫ গিগাহার্জ Krait প্রসেসর, ২ জিবি র‍্যাম, ১৬ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ, আপটু ৬৪ জিবি এক্সটারনাল স্টোরেজ সুবিধা,২.২মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা এবং ১৩ মেগাপিক্সেল ব্যাক ক্যামেরা।এখন পর্যন্ত Xperia Z  সনির বেস্ট স্মার্টফোন। কারন আপনারা সবাই জানেন সনি বলে থাকে Experience the best of Sony in a Smartphone। তো চলুন এবার দেখে আসি Xperia Z এর কিছু ভাল এবং খারাপ দিক…

2013 Smartphone review

Xperia Z এর ভাল দিকঃ

১) আকর্ষণীয় ডিজাইন

২) ক্যামেরা কোয়ালিটি

৩) ওয়াটার রেসিস্ট্যান্ট

৪) ডাস্ট প্রুফ

৫) ১০৮০ পি ভিডিও রেকর্ডিং

৬) 1920 x 1080 রেজোলিউশান এর ৫.০ ইঞ্চি স্ক্রীন

Xperia Z এর খারাপ দিকঃ 

১) অ্যান্ড্রয়েড 4.1.2 বিল্ট ইন

২) ফিঙ্গার প্রিন্ট ম্যাগনেট

৩) ব্যাটারি রিপ্লেস করা যায় না

৪) ১৩ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা আরও ভাল হতে পারতো

৫) Xperia Z এর আকৃতি চারকোনা হওয়ার কারনে ব্যাবহারে একটু অসুবিধা হয়

 

HTC One 

এবার আসি সারা বিশ্ব জুড়ে স্মার্টফোন বাজারে যে ফোন টি ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি করেছে তার কথায়। হ্যাঁ ঠিক ধরেছেন আমি তাইওয়ান এর স্মার্টফোন নির্মাতা HTC এর স্মার্ট ফোন HTC One এর কথাই বলছি। Xperia Z রিলিজ হওয়ার ঠিক পরের মাসেই অর্থাৎ চলতি বছরের মার্চ মাসে HTC বাজারে নিয়ে আসে HTC One। HTC এর স্মার্ট ফোন গুলোর বিরুদ্ধে সবসময় যে অভিযোগ টি শোনা যায় তা হল ব্যাটারি লাইফ। HTC এর বেশ কিছু ডিভাইস যেমন HTC One X, HTC One X Plus এবং আরও কিছু ডিভাইস এ ব্যাটারি লাইফ এর সমস্যা ছিল প্রকট। HTC অনেক চেষ্টা করেও এই সমস্যা দূর করতে পারে নাই। অবশেষে HTC One দিয়ে এই সমস্যার সমাধান হল। HTC One এ রয়েছে  1080 x 1920 রেজোলিউশান এর ৪.৭ ইঞ্চি স্ক্রীন, কোয়াড কোর ১.৭ গিগাহার্জ Krait 300 প্রসেসর, ৩২ অথবা ৬৪ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ, ২ জিবি র‍্যাম, ২.১ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা এবং আলট্রা পিক্সেল ব্যাক ক্যামেরা এবং Beats Audio এনহেন্সমেন্ট তো আছেই। চলুন এবার দেখে আসি HTC One এর ভাল এবং খারাপ দিক গুলো …

2013 smartphone review

HTC One এর ভাল দিকঃ

১) আকর্ষণীয় ডিজাইন

২) ১০৮০ পি ৪.৭ ইঞ্চি স্ক্রীন

৩) দ্রুত গতির প্রসেসর

৪) ডুয়াল স্পিকার

৫) ভাল ব্যাটারি ব্যাকআপ

৬) Zoe Share এবং Highlight Reel এর মত সম্পূর্ণ নতুন কিছু ফিচার

HTC One এর খারাপ দিকঃ

১) Sense 5 UI এর কিছু ব্যাক ডেটেড ফিচার

২)  এক্সটারনাল কার্ড স্লট নেই

৩) ব্যাটারি রিপ্লেস করার সুযোগ নেই

 

Samsung Galaxy S4

HTC One এর পর চলতি বছরের এপ্রিল মাসে Samsung বাজারে নিয়ে আসে Galaxy S4। আপনারা সবাই হয়ত একটা ব্যাপার লক্ষ্য করেছেন আর তা হল এতদিন Samsung এর ডিভাইস গুলোর নামের সাথে থাকতো রোমান সংখ্যা যেমন Samsung Galaxy S III  যা পরিবর্তন করে এখন ডিজিট অর্থাৎ Samsung Galaxy S4 করা হয়েছে। যাই হোক এটা তেমন কোন পরিবর্তন নয়। ঠিক তেমনি S III থেকে  S4 এর ডিজাইনেও আসেনি তেমন কোন পরিবর্তন। Galaxy S4 দেখলে আপনার মনে হতে পারে ফোন টি আপনি আগেই দেখেছেন, কারন এর ডিজাইন S III এর এর মতই। বর্তমানে স্মার্ট ফোন বাজারের শীর্ষে থাকা HTC One এবং Xperia Z এর তুলনায় ডিজাইন এর দিক থেকে S4 অনেকটাই পিছিয়ে।  Galaxy S4 এ রয়েছে 1080 x 1920 রেজোলিউশান এর ৫.০ ইঞ্চি স্ক্রীন, 1.9 GHz quad-core Qualcomm Snapdragon 600 প্রসেসর, ১৬/৩২/৬৪ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ, ২ জিবি র‍্যাম, আপটু ৬৪ জিবি এক্সটারনাল কার্ড স্লট সাপোর্ট,২ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা এবং ১৩ মেগাপিক্সেল ব্যাক ক্যামেরা। এবার ভাল আর খারাপ দিক দেখার পালা…

2013 Smartphone review

Galaxy S4 এর ভাল দিকঃ

১) 441ppi AMOLED ডিসপ্লে

২) 1.9 GHz quad-core Qualcomm Snapdragon 600 প্রসেসর যা অনেক দ্রুত গতির এবং অধিক ক্ষমতা সম্পন্ন

৩) ১৩ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা যার কোয়ালিটি সবার থেকে উন্নত

৫) অ্যান্ড্রয়েড ৪.২ বিল্ট ইন

৬)  IR blaster যা দিয়ে আপনি আপনার টিভি কন্ট্রোল করতে পারবেন

৭) অত্যাধুনিক সব ফিচার

৮) ব্যাটারি রিপ্লেস করার সুবিধা

Galaxy S4 খারাপ দিকঃ 

১) ডিজাইন

২)প্লাস্টিক বডি

৩)অপ্রয়োজনীয় কিছু সফটওয়্যার এবং ফিচার যা আপনার কাছে বিরক্তিকর মনে হতে পারে

৫) মিডিয়াম ব্যাটারি লাইফ

 

শেষ কথাঃ উপরের সব গুলো স্মার্ট ফোন তুলনা করার পর বলা যেতে পারে

১) যদি আপনি কম দামে ব্র্যান্ড এর কোয়াড কোর ফোন এবং অ্যান্ড্রয়েড এর সব আপডেট সবার আগে পেতে চান তাহলে Google Nexus 4 বেস্ট।

২) যদি আকর্ষণীয় ডিজাইন, জমকালো লুক আর ওয়াটার প্রুফ ফোন চান তাহলে Xperia Z  আপনার জন্য বেস্ট।

৩) যদি প্রসেসর, ক্যামেরা, লুক সব মিলিয়ে ওভার অল পারফর্মেন্স তাহলে HTC One আপনার জন্য বেস্ট।

৪) আর যদি ডিজাইন এবং লুক এর চিন্তা বাদ দিয়ে পাওয়ারফুল ও দ্রুত গতির প্রসেসর, সবচাইতে ভাল ক্যামেরা কোয়ালিটি চান তাহলে Galaxy S4 বেছে নিতে পারেন।

 

 

 

 

Mobile Update

About Rayhan

আপনার মূল্যবান কমেন্ট করুন :)