Home / প্রতিবেদন / গুগল অ্যাপস ভেরিফিকেশন ( হ্যাকার থেকে বাচুন )

গুগল অ্যাপস ভেরিফিকেশন ( হ্যাকার থেকে বাচুন )

গুগল প্লে অ্যাপ্লিকেশনের অংশ হিসেবে আন্ড্রয়েডের ৪.২ জেলী বিন ভার্সনে অ্যাপ্লিকেশন ভেরিফিকেশন সার্ভিস চালু করেছে। যে কোনো মাধ্যম থেকে পাওয়া অ্যাপ্লিকেশনে এই সার্ভিসটি থাকে। কিন্তু সার্ভিসটি চালু করার জন্য গুগল প্লে ইনস্টল করতে হবে, নতুবা অ্যাপ্লিকেশন ভেরিফাই হবে না।

apps verification

এন্ড্রয়েড এর অ্যাপ্লিকেশনগুলো ভেরিফাই না করলে এন্ড্রয়েড ফোনটি সম্পূর্ণ হুমকির সম্মুখীন থাকে। অ্যাপ্লিকেশন ভেরিফাই না করলে যেকোনো সময় যেকোনো ধরনের ট্রোজান বা ম্যালওয়্যার আক্রমন করতে পারে। একবার যদি অ্যাপ্লিকেশন ভেরিফাই হয়ে যায় তাহলে ভেরিফিকেশন সার্ভিসটি গুগলে অ্যাপ্লিকেশন সম্পর্কে কিছু তথ্য পাঠিয়ে দেয়। পাঠানো তথ্যের মধ্যে যা পাঠানো হয় তা হলোঃ

  • অ্যাপ্লিকেশনটির নাম
  • অ্যাপ্লিকেশনটির ইউআরএল
  • একটি ইউনিক সাক্ষর
  • স্ক্যান করা অ্যাপ্লিকেশনটির একটি ফাইল

গুগল সকল তথ্য নিয়ে ট্রোজান বা ম্যালওয়্যার অ্যাপ্লিকেশনগুলোর সাথে তুলনা করে। তুলনা করার পর অ্যাপ্লিকেশনগুলোর ব্যবহারকারীদের ম্যালওয়্যার অ্যাপ্লিকেশন সম্পর্কে তথ্য জানিয়ে দেয়। গুগল অ্যাপ্লিকেশন ভেরিফিকেশন করলে মোবাইল ফোনের বিভিন্ন ধরনের বিপদের হাত থেকে রক্ষা পাওয়া যায়। গুগল অ্যাপ্লিকেশন ভেরিফিকেশনের সুবিধাগুলো হলো;

  • অ্যাপ্লিকেশনটি সুরক্ষিত কিনা তা পরীক্ষা করতে পারে।
  • অ্যাপ্লিকেশনটি বিপদজনক হলে গুগল ব্যবহারকারীকে জানাতে পারে।
  • অ্যাপ্লিকেশনটি আপডেট করতে পারে।
  • অ্যাপ্লিকেশনটি বিপদজনক হলে গুগল তা ব্লক করে দেয়।
  • ব্যবহারকারী অ্যাপ্লিকেশনটি সম্পর্কে জানার পর অন্য পথ বাছাই করতে পারে।

android security

গুগল অ্যাপ্লিকেশন ভেরিফিকেশনের পর সে যদি কোনো ধরনের ‘বিপদ’ বা ‘সম্ভাব্য বিপদ’ দেখে, তবে সাথে সাথে ব্যবহারকারীকে এসএমএস এর মাধ্যমে জানিয়ে দেয়। যদি সে অ্যাপ্লিকেশনটিকে বিপদজনক বলে সনাক্ত করে তাহলে সেটাকে ব্লক করে ফেলে। আর যদি অ্যাপ্লিকেশনটিকে সম্ভাব্য বিপদজনক বলে সনাক্ত করে তবে সে ব্যবহারকারীকে সতর্ক করে দেয়। ফলে ব্যবহারকারীরা সেটি ত্যাগ করে অন্যটি বাছাই করতে পারে।

নর্থ ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের জুজিয়ান জিয়াং গুগলকে ১২৩৬ টি ম্যালওয়্যারের স্যাম্পল দিয়েছিল। গুগল অ্যাপ্লিকেশন ভেরিফিকেশন সার্ভিসটি সেখান থেকে মাত্র ১৯৩ টি বা ১৫% ম্যালওয়্যার ধরতে পেরেছে। এরপর আন্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেম ৪.২ জেলী বিন ভারসনটি বের করে। কিন্তু তারপরও অ্যাপ্লিকেশন ভেরিফিকেশন সার্ভিসটি ১০০% ম্যালওয়্যার ধরতে পারে না।

তাই আরও সুরক্ষার জন্য আন্টিভাইরাস ব্যবহার করতে হবে।

Mobile Update

About Nazmul Shuvo

আপনার মূল্যবান কমেন্ট করুন :)